DNS Explained

How DNS works

DNS মানে হলো Domain Name System.

এটি ইন্টারনেট এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। এটি ছাড়া ইন্টারনেট যেকোন মুহূর্তে ধসে পরতে বাধ্য। ডিএনএস না থাকা মানে No Internet, No facebook, No Google. সুতরাং বুঝা যাচ্ছে ডিএনএস দি-ই-ই-ই-ই-ই-ই ইম্পট্যার্ন্ট!

তাহলে ডিএনএস কি?

আমরা সবাই জানি (যারা জানি না তারা নিজ দায়িত্ব জেনে নিন) প্রত্যেকটি কম্পিউটারের একটি আইপি এড্রেস থাকে। আইপি এড্রেস এর মাধ্যমে একটা কম্পিউটার আরেকটি কম্পিউটারকে চিনতে পারে। ধরা যাক ফেইসবুক, ফেইসবুক একটা এপ্লিক্যাশান, আলোচনার সুবিধার্থে ধরে নিলাম একটা মাত্র কম্পিউটারে ফেইসবুকটি চলে, আর কম্পিউটারের একটা আইপি এড্রেস আছে। সুতরাং আমাদের যে কম্পিউটারে ফেইসবুক চলে, সেই কম্পউটারের আইপি এড্রেসটি জানতে হবে যদি আমরা ফেইসবুক ব্যবহার করে চাই। আইপি এড্রেস হতে হয় ইউনিক। দুনিয়াতে যেহেতু কোটি কোটি কম্পিউটার, সুতরাং এই আইপি এড্রেস ইউনিক করতে গিয়ে এমন হয়েছে যে আমরা যারা সাধারণ মানুষ(যারা পাই-এর মান ২০০ ঘর পর্যন্ত মনে রাখতে পারে, তারা অসাধরণ) কোন ভাবেই মনে রাখতে পারি না। যেমন ফেইসবুকের আইপি এড্রেস হলো- 173.252.110.27 গুগলের হলো 173.194.34.164. সুতরাং হাজার হাজার ওয়েব সাইট যেগুলা আমরা প্রতিনিয়ত ব্রাউজ করি সেগুলার একটা নির্দিষ্ট আইপি এড্রেস থাকে। আমাদের কারো পক্ষেই এতো আইপি এড্রেস মনে রাখা সম্ভব না। আমরা যেহেতু বুদ্ধিমান, সুতরাং একটা উপায় বের করে ফেলেছি, আর সেটিই হলো ডোমেইন নেম সিস্টেম। আমরা প্রত্যকটি আইপি এড্রেস এর জন্যে একটি করে সুন্দর নাম দিয়ে রাখি, তাতে করে আমাদের মনে রাখতে সুবিধা হয়। ডোমেইন নেম সিস্টেম হলো একটা Distributed ডাটাবেইস এবং নেটওয়ার্ক সিস্টেম যেখানে আপইপি এড্রেসের সাথে একটা নাম লেখা থাকে এবং এতে করে আমাদের ফেইসবুকের আইপি এড্রেস মনে রাখতে হয় না, আমাদের facebook.com মনে রাখলেই চলে।

এখন এটি তাহলে কিভাবে কাজ করে? আমারা যখন ব্রাউজারের এড্রেস বারে http://www.facebook.com লিখি, তখন ব্রাউজার এবং অপারেটিং সিস্টেম চিন্তা করবে, এর আইপি এড্রেস আগে তারা থেকে জানে কিনা(will first determine if they know what the ip address is already)। এটি কম্পউটারে কনফিগার করা থাকতে পারে কিংবা মেমরীতে থাকতে পারে(it could be configured in computer or it could be in memory(cache)). এখন আসি, যদি ব্রাউজার এবং অপারেটিং সিস্টেম দুটির কেও-ই না জানে, তাহলে কি হবে?

What happens next?

ব্রাউজার অপারেটিং সিস্টেম এর কাছে ডোমেইন এর আইপি এড্রেস চেয়ে বসে থাকবে, আর অপারেটিং সিস্টেম এমনভাবে কনফিগার করা থাকে যে, সে একটি Resolving Name Server এর কাছে আস্ক করে পারে ডোমেইন নেইম এর জন্যে।

Resolving Name Server এর কাজ হলো ডিএনএস লুকআপ করা। এটি ওপারেটিং সিস্টেমের সাথে কনফিগার করা থাকে।

কিন্তু Resolving Name Server আইপি এড্রেস জানতেও পারে আবার নাও জানতে পারে। অপশন দুইটা। যদি মেমরিতে থাকে থাকে, তাহলে সাথে সাথে অপারেটিং সিস্টেমকে আইপি এড্রেসটি দিয়ে দেবে। না থাকলে সাথে সাথে রুট নেইম সার্ভারক কুয়েরি করবে। কিন্তু রুট নেম সার্ভার সাথে সাথে রিপ্লাই দিবে, I don’t know. But I do know where to find the com name severs. কম নেইম সার্ভার হচ্ছে টপ লেভেল ডুমেইন নেইম সার্ভার। রিসলভিং সার্ভার রুট সার্ভার এর কাছে সব ইনফরমেশন নিয়ে কেশ করে রাখে যাতে করে দ্বিতীয় বার রুট সার্ভারের কাছে যেতে না হয়। এরপর সে টপ লেভেল ডুমেইন সার্ভারের (TLD) কাছে কুয়েরি করে। এবং যথারীতি টপ লেভেল ডুমেইন সার্ভার রিপ্লায় দেয়… a a ah.. I don’t know, But I do know where to find the facebook.com name server.

নেক্সট লেভেল নেইম সার্ভারের নাম হলো, Authoritative Name Server. সুতরাং আগের মতোই রিসলভিং সার্ভার TLD এর কাছ থেকে সব ইনফরমেশন নিয়ে Authoritative Name Server এর কাছে কুয়েরি করে, এবং সাথে সাথে Authoritative Name Server বলবে, Hey! I know where that is! Tell your browser to go to the IP address: 173.252.110.27.

রিসলভিং নেইম সার্ভার ANS এর কাছে এই ইনফরমেন নিয়ে নিজের কাছে কেশ করে রাখে এবং অপারেটিং সিস্টেমকে বলে, অপারেটিং সিস্টেম তখন আইপি ব্রাওজারকে বলে, আর ব্রাওজার সাথে সাথে সেই আইপিতে হিট করে(কানেকশান ক্রিয়েট করে,Http protocol একটা বিশাল ফিরিস্তি, পরে কোন একসময় বলবো)।

Pretty Cool, huh!!

যদিও প্রসেসটা একটু জটিল, কিন্তু নেইম সার্ভার সিস্টেম কে এমন ভাবে বানানো হয়েছে, যাতে করে এটি চোখের পলকেই কাজ করে ফেলে।

সুতরাং চারটা জিনিস, Resolving Name Server, The ROOT server, The TLD server and Authoritative Name Server.

এর কোন একটি যদি কলাপস হয়, হে হে, সাথে সাথেই সব ইন্টারনেট নাই হয়ে যাবে।

Advertisements

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / Change )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / Change )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / Change )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / Change )

Connecting to %s